JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.

অর্থমন্ত্রীর ছাড়ে উর্ধ্বমুখী পুঁজিবাজার

ব্যাংকের তারল্য সংকট মেটাতে ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকগুলোর নগদ জমা সংরক্ষণ (সিআরআর) ১ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এছাড়া সরকারি আমানতের ৫০ শতাংশ বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে সংরক্ষণের সিদ্ধান্তও নিয়েছেন তিনি।

রোববার ব্যাংকারদের সাথে বৈঠক শেষে ব্যাংকের তারল্য সংকট ও বিনিয়োগ মন্থরতা কাটাতে এমন সিদ্ধান্ত নেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অর্থমন্ত্রীর এমন সিদ্ধান্তে আস্থা সংকট কেটেছে পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীদের।

এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার দিন শেষে দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জের লেনদেন ও সূচক বেড়েছে বলে মনে করছেন পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টরা।

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে (সোমবার) পুঁজিবাজারের লেনদেন হওয়া সিংহভাগ কোম্পানির দর বৃদ্ধিতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক বেড়েছে। এসময় ডিএসইতে ৫৯৯ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক বেড়েছে ১৭৬ পয়েন্ট। এসময় সিএসইতে ৮৬ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ডিএসই ও সিএসই’র বাজার পর্যালোচনায় এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানি ও ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ২৩৪টির। দর কমেছে ৭১টি কোম্পানি ও ফান্ডের, দর অপরিবর্তিত ছিল ৩৪টি প্রতিষ্ঠানের।

দিনশেষে ডিএসইতে ১৯ কোটি ৮৮ লাখ ৬৮ হাজার ৭৭৬টি শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসময় টাকার অংকে লেনদেন হয়েছে ৫৯৯ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। এর আগের কার্যদিবসে ডিএসইতে ৪৪১ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

দিনশেষে ডিএসই’র সার্বিক মূল্য সূচক ডিএসইক্স আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৮০.৩৭ পয়েন্ট বেড়ে ৫৮২৭ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে। এসময় শরীয়াহ্ ভিত্তিক কোম্পানিগুলোর মূল্যসূচক ডিএসইএস বেড়েছে ১৫.৪৯ পয়েন্ট ও ডিএস-৩০ সূচক বেড়েছে ২৬.৭১ পয়েন্ট।

লেনদেন শেষে টার্নওভার তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে বেক্সিমকো। এসময় কোম্পানিটির ২৬ কোটি ৩০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। টার্নওভার দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, কোম্পানিটির ১৯ কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৮ কোটি ৭৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মধ্যে দিয়ে টার্নওভারের তৃতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে ইউনিক হোটেল।

টার্নওভার তালিকায় থাকা অন্যান্য কোম্পানিগুলো-মার্কেন্টাইল ব্যাংক, বিডি কম অনলাইন, ব্র্যাক ব্যাংক, স্কয়ার ফার্মা, ফরচুন সুজ, সিটি ব্যাংক ও মুন্নু সিরামিক।

এদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) লেনদেন হওয়া ২৪০টি কোম্পানি ও ফান্ডগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৭ টির, দর কমেছে ৩৮ টির ও দর অপরিবর্তিত ছিল ১৫টি প্রতিষ্ঠানের। এসময় সিএসইতে ৮৬ কোটি ১৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

দিনশেষে সিএসই’র সার্বিক মূল্য সূচক সিএসইএক্স আগের কার্যদিবসের তুলনায় ১৭০.৩৯ পয়েন্ট বেড়ে ১০ হাজার ৮৬৮ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে। এসময় সিএসইতে টার্নওভার তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে ইসলামী ব্যাংক, কোম্পানিটির ৩৯ কোটি ২২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

Comments

comments

error: Content is protected !!