বজরং পুনিয়া: নাডার অ্যান্টি ডিসিপ্লিনারি ডোপিং প্যানেলের নিষেধাজ্ঞা

Spread the love

অলিম্পিক্সের‌(olympics) ইতিহাসে অন্যতম সেরা ক্রীড়াবিদ বজরং পুনিয়া(Bajrang Punia)। শেষ টোকিও অলিম্পিক গেমসে ভারতের হয়ে পদক জিতেছিলেন তিনি।বজরং পুনিয়া(Bajrang Punia),নাডা এবং নাডার অ্যান্টি ডিসিপ্লিনারি ডোপিং প্যানেলের দেওয়া নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিল করেছিলেন।ফলে ৩১ মে তাঁকে সাময়িক স্বস্তি দিয়ে চার্জশিট না দেওয়া পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা তোলা হয়েছিল।যা এদিন থেকে ফের লাগু করা হয়েছে। নাডার তরফে বজরংকে জানানো হয়েছে ‘ এই তথ্যকে আপনার বিরুদ্ধে ফর্ম্যাল নোটিশ হিসেবে ধরুন আপনি। কয়েকমাস আগেই তিনি জাতীয় অ্যান্টি ডোপিং এজেন্সি অর্থাৎ নাডার নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছিলেন। পরবর্তীতে নাডার তরফে জানানো হয়েছিল যতদিন না ‘নোটিশ অফ চার্জ ‘ অর্থাৎ চার্জশিট দেওয়া হচ্ছে বজরং পুনিয়ার বিরুদ্ধে ততদিন তাঁর উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা সাময়িক স্থগিত করা হল। এবার রবিবার নাডার তরফে বজরংয়ের বিরুদ্ধে জারি করা হয়েছে চার্জশিট এবং পাশাপাশি ফের একবার নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বজরং পুনিয়ার উপরে।

জাতীয় অ্যান্টি ডোপিং নিয়মের(২০২১) আর্টিকেল ২.৩ নিয়মকে আপনি অগ্রাহ্য করেছেন। যার শাস্তিস্বরূপ আপনাকে প্রভিশনালি সাসপেন্ড করা হল।’ বজরং পুনিয়ার হাতে ১১ জুলাই পর্যন্ত সময় রয়েছে এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করার। বজরং বারবার দাবি করেছেন তিনি কখন ও তাঁর মূত্রের নমুনা দিতে অস্বীকার করেননি। তাঁর বিরুদ্ধে চক্রান্ত করে তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা হচ্ছে। তাঁর বক্তব্য ছিল তিনি নাডাকে ইমেল করে জানতে চেয়েছিলেন কেন মেয়াদ উত্তীর্ণ কিটে তাঁকে মূত্রের নমুনা দিতে হবে?

প্রসঙ্গত গত টোকিও অলিম্পিক গেমসে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন কুস্তিগীর বজরং পুনিয়া। গত ১০ মার্চ আসন্ন প্যারিস অলিম্পিক গেমসের সিলেকশন ট্রায়াল আয়োজন করেছিল ভারতীয় কুস্তি ফেডারেশন।সেখানে লড়াই করেছিলেন বজরং। সেখানেই রুটিন মাফিক তাঁর মূত্রের নমুনা পরীক্ষা করার জন্য চাওয়া হয়। তবে তিনি তা দিতে অস্বীকার করে দেন। ফলে নিয়মমাফিক ডোপ পরীক্ষায় ফেল করেন তিনি। আজকের তারিখ থেকে ঠিক তিন সপ্তাহে আগেই তাঁর উপর নিষেধাজ্ঞায় স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছিল। তিন সপ্তাহ পরে ফের নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল চার্জশিট দেওয়ার পরে। উল্লেখ্য ২৩ এপ্রিল নাডার তরফে বজরংয়ের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *