Kalyan Chaubey। সব শুরুর শেষ থাকে! তৃণমূলের ঘণ্টা বেজে গেছে

Spread the love

সব শুরুর একটা শেষ থাকে। প্রয়াত তৃণমূল নেতা সাধন পাণ্ডে(Sadhan Pandey) প্রসঙ্গে ঠিক এমন কথাই বললেন মানিকতলা উপনির্বাচনের দাপুটে প্রার্থী কল্যাণ চৌবে(Kalyan chaubey)। সুপ্তি পাণ্ডেকে(Supti Pandey) হারাতে মানিকতলা আসনে রণকৌশল সাজাচ্ছেন বিজেপি প্রার্থী।এক সাক্ষাৎকরে কল্যাণ বাবু জানান,লোকসভা নির্বাচনের পর আরেকটা নির্বাচন আসা একটি প্রতিকূল পরিস্থিতি। দল আমার ভরসা এবং বিশ্বাস রেখেছে এটা আমার কাছে গর্বে। মানিকতলা বিধানসভা উপ নির্বাচনের জন্য ভারতীয় জনতা পার্টি প্রস্তুত রয়েছে। জেতার জন্য লড়াই করবে।তবে মানিকতলায় দীর্ঘদিন বিধায়ক ছিলেন সাধন পাণ্ডে।তিনি প্রয়াত হওয়ায় তাঁর স্ত্রী সুপ্তি পাণ্ডেকে প্রার্থী করেছে শাসকদল।এবার দেখার হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে কে জেতেন?সুপ্তি নাকি কল্যাণ?

কল্যাণ চৌবে(Kalyan chaubey)বলেন, কয়েক দশক ধরে সাধনবাবু মানিকতলার প্রতিনিধিত্ব করেছেন। সব শুরুর একটা শেষ থাকে। এটা দুঃখজনক যে তিনি মারা গিয়েছেন। তবে তাঁর পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রয়েছে।কিন্তু এই নির্বাচনে মানিকতলার মানুষ যদি মনে করেন এবার তাঁরা পরিবর্তন চান, একজন বিকল্প বিধায়ককে চান, জন প্রতিনিধিকে চান, তাহলে আমি বিশ্বাস দিতে চাই স্বচ্ছ ভাবমূর্তির একটি দল ভারতীয় জনতা পার্টি বা প্রার্থী বিধানসভায় গিয়ে মানিকতলার মানুষের উন্নয়নের কথা তুলে ধরবে।

এবার সাধনবাবু না থাকায় তার পরিবর্তে তাঁর স্ত্রীকে প্রার্থী করেছে তৃণমূল, কি মনে হচ্ছে কতটা ভোট পড়তে পারে? এই প্রশ্নে মানিকতলার বিজেপি প্রার্থী জানান, তিনি একজন নারী এবং বয়সজেষ্ঠা! ব্যক্তি হিসাবে তাঁর প্রতি আমার কোনও অভিমত নেই। ভারতীয় জনতা পার্টির বিচার এবং ভাবনাকে মানুষের সামনে তুলে ধরতে যে যে বিষয় এবং কথা তুলতে হবে তা আমি তুলতে চাই। সাধন স্ত্রী তথা তৃণমূল প্রার্থী সুপ্তি পাণ্ডেকে নিয়ে আমি কোনও মন্তব্য করছি না।

প্রসঙ্গত,লোকসভা নির্বাচনে রেশ কাটতে না কাটতেই ফের একটা নির্বাচন বাংলায়! আগামী ১০ জুলাই বাংলার চার বিধানসভা কেন্দ্রে উপ নির্বাচন হবে। ভোট হবে রায়গঞ্জ, রানাঘাট দক্ষিণ, বাগদা এবং মানিকতলা কেন্দ্রে। রায়গঞ্জে কৃষ্ণ কল্যাণী, রানাঘাট দক্ষিণে মুকুটমণি অধিকারী, বাগদায় বিশ্বজিৎ দাস ইস্তফা দেওয়ায় এই কেন্দ্রগুলিতে উপনির্বাচন হবে। পাশাপাশি বিধায়ক সাধন পাণ্ডের মৃত্যুতে দীর্ঘদিন মানিকতলা কেন্দ্রটি খালি ছিল। সেখানেও ভোট হবে। যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর সেই কেন্দ্রে এবারও বিজেপির তাস বিজেপি নেতা কল্যাণ চৌবে (Kalyan Chaubey)। বিজেপি প্রার্থী জানান, আমরা সবসময় তোলাবাজির কথা শুনতে থাকি। তা সে রাস্তার হকার হোক কিংবা অটো চালক, ব্যাপক ভাবে তোলাবাজি চলে এই মানিকতলা এলাকায়। আর সেটা আমি বন্ধ করাই লক্ষ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *