Lok Sabha Speaker Election:স্পিকার পদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন সাংসদ কে সুরেশ

Spread the love

লোকসভার(Loksabha) স্পিকার পদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন কংগ্রেসের সাংসদ কে সুরেশ(K Suresh)। প্রাথমিকভাবে কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী জানিয়েছিলেন যে বিরোধীদের যদি ডেপুটি স্পিকারের পদ ছেড়ে দেওয়া হয়, তাহলে স্পিকার পদে নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi) সরকারের প্রার্থীকে সমর্থন করা হবে। শেষপর্যন্ত সেটা হল না। বরং স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে প্রথমবার স্পিকার পদে নির্বাচন হতে চলেছে। তিনি মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ায় ইতিহাস তৈরি হল। কারণ স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে এই প্রথমবার লোকসভা স্পিকার পদে নির্বাচন হতে চলেছে। জেডিইউ নেতা লালন সিং ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন যে সর্বসম্মতভাবে এনডিএয়ের প্রার্থী হিসেবে রাজস্থানের কোটার বিজেপি সাংসদ ওম বিড়লা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। সেই পরিস্থিতিতে নির্বাচনের মাধ্যমে নির্ধারিত হবে যে কে অষ্টদশ লোকসভার স্পিকারের কুর্সিতে বসবেন। আর সেই নির্বাচন পদ্ধতি একেবারেই সহজ। লোকসভায় ভোট হবে। 

রাহুল(Rahul Gandhi) বলেন, ‘সব বিরোধীরাই জানিয়েছে যে স্পিকার পদে সরকারকে সমর্থন করবে। কিন্তু রীতি হল যে বিরোধীদের ডেপুটি স্পিকারের পদ দিতে হবে। মল্লিকার্জুন খাড়গেজি’কে ফোন করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজনাথ সিং। উনি বলেছিলেন যে ফের ফোন করবেন। কিন্তু সেটা করা হয়নি। মোদীজি একদিকে বলছেন যে সহযোগিতার প্রয়োজন আছে। অন্যদিকে ফোন না করে আমাদের নেতাদের অপমান করছেন নরেন্দ্র মোদীজি।’কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা পীযূষ গোয়েল বলেন, ‘সকালে মল্লিকার্জুন খাড়গেজি’র সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে চেয়েছিলেন রাজনাথ সিং। তো উনি বলেন যে কেসি বেণুগোপাল কথা বলবেন। টিআর বালু এবং কেসি বেণুগোপালজি’র আলোচনার পরে তাঁদের সেই আদিম মানসিকতা ফুটে ওঠে। তাঁরা দাবি করেন যে ডেপুটি স্পিকার কে হবেন, সেটা আগে ঠিক করতে হবে। তারপর স্পিকার পদপ্রার্থীকে সমর্থন করবেন। এই ধরনের রাজনীতির নিন্দা করি আমরা।’কংগ্রেসের সাংসদ গৌরব গগৈ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মুখে একটা কথা বলেন। আদতে অন্য কাজ করেন। গতকাল উনি ঐক্যমতের কথা বললেন। কিন্তু আজ উনি ডেপুটি স্পিকারের পদ ছাড়তেও রাজি হননি। যদি সেই আগের মতোই ইগো থাকে, তাহলে গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে এবং লোকসভার মর্যাদা রক্ষা করতে আমার লড়াই চলবে। সেজন্য আমাদের শিবির থেকে সুরেশকে দাঁড় করিয়েছি। এটা একটা লড়াই। সেই লড়াইয়ের মাধ্যমে আমরা দেশকে বলতে চাই যে বিরোধীরা সচেতন আছে এবং বিরোধীরা সতর্ক আছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *